*** দর্শন ও জীবন …..
 
প্রিয় ব্যাক্তিত্ব আব্দুল্লাহ আবু সায়েদ স্যারের এক সাক্ষাৎকার দেখছিলাম। মানুষ দুই একটা দর্শন নিয়ে জীবন পার করে দিতে পারে। ভিডিও পজ বা ক্ষনিকের জন্য বন্ধ করে চিন্তা করতে সেটা আবার কেমন করে ? কথার মানে খুঁজতে লাগলাম।
 
দর্শন মানে কি ? – একজন মানুষ যা চিন্তা করে। যা অনুধাবন করে। এবং যা মেনে চলার চেষ্টা করে।
 
আপনি যদি ব্যক্তিগতভাবে চিন্তা করেন যে কাউকে খুশি রাখলে আপনিও খুশি থাকবেন তবে আর যাইহোক আপনি কাউকে কষ্ট দিবেন না।
 
“আমি ব্যাভিচারী পুরুষের জন্য ব্যাভিচারী মহিলা সৃষ্টি করেছি ” – পবিত্র কোরআন শরীফের এই বাণী কেও যদি মেনে চলে তবে সে কোনো মেয়ে বা মহিলার সাথে খারাপ বা অশালীন ব্যবহার করবে না কারণ কে চায় তার সহধর্মিনী ও খারাপ হোক।
 
কেও যদি মনে করে দুনিয়াটা দুই দিনের যা খুশি তা করি। ফুর্তি করি,খাই দাই আর যা মনে হয় তা করি -সেটাও একজনের দর্শন অর্থাৎ সে এটাই বিশ্বাস করে। তাকে দিয়ে আর যাই হোক ভালো কিছু সম্ভব কিনা সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না।
 
পরোক্ষনে কেউ কেউ তো এমনও দর্শন লালন করে যে দুই দিনের এই পৃথিবীতে কিছু ভালো কাজ রেখে যাই যা মানুষের কাজে আসবে।
 
কেও যদি বুদ্ধের কথার রেশ ধরে মেনে সমাজে ছোট বড় বলতে কিছুই নেই। সবাই সমান। সবাই সমান আমরা অনেকেই মেনে নিতে পারি না কারণ আমরা বুদ্ধের ন্যায় দর্শনের জন্ম দিতে পারি নাই।
 
প্রশ্ন আসতে পারে দর্শনের জন্ম হয় কিভাবে ?
 
দর্শন আমাদের আসে পাশেই। আমরা প্রত্যেকটা মানুষই দার্শনিক কারণ আমরা সবাই কিছু না কিছু বিশ্বাস করে জীবন ধারণ করি। দর্শনের জন্ম হয় বই থেকে,ভালো মুভি থেকে,ভালো বন্ধুবান্ধব থেকে। নিজ নিজ ধর্মগ্রন্থ অর্থসহ পড়তে পারেন।
Advertisements