ইংরেজীর দূর্বলতা ও দূরীকরণ।
পার্ট -০১

বর্তমান সময়ে আমরা সবাই গ্লোবাল সিটিজেন বা নাগরিক। এখন এমন এক অবস্থা ইচ্ছা না থাকা ও সত্ত্বেও আমাদেরকে ইংরেজী শিখতে হবে।

** চলুন জেনে নেই কেন শিখতে হবে >>

১। বিশ্বকে জানতে। এখন জানার সবচেয়ে বড় মাধ্যম হচ্ছে ইন্টারনেট। ইন্টারনের ভাষা ইংলিশ।

২। নিজের দেশের লেখকদের পাশাপাশি আমাদেরকে বিশ্বের অন্যান্য লেখকদের বই পড়তে হয় । আর সব দেশের লেখকদের বই তো আর তাদের নিজ নিজ ভাষায় আপনি পড়তে পারবেন না। আপনাকে বড় বড় লেখকদের বই ইংরেজিতে অনুবাদ করে দেয়া হয়েছে।

> এখন অনেকেই বিশ্বকে জানতে চান না। এমনকি বই ও পড়তে চান না। তাহলে কি আপনাকেও শিখতে হবে ?

মন্তব্য : আপনি বুঝলেন না আপনি কী হারালেন। আপনি বুঝলেনই না জীবন কি।

৪। হ্যা ,আপনি যদি উচ্চতর ডিগ্রি নিতে চান তবে আপনাকে অবশ্যই ইংরেজী শিখতে হবে কারণ উচ্চতর ক্লাসের সব বই ইংরেজীতে লিখা।

৫। আপনি যদি ব্যবসা করতে চান তাও ইংরেজীর দরকার। সেটা কেমন করে ? আপনি তো অনেক বড় ব্যাবসায়ী হবেন তার জন্য আপনাকে দেশের বাইরের মানুষের সাথে কথা বলতে হবে। বাংলায় কথা বলবেন ? বলতে পারেন তবে তারা বুঝবে না।আপনার ব্যবসা নষ্ট হতে লাগলো শুধু মাত্র ইংরেজীর কারণে।

> না না ,আমি উচ্চতর ডিগ্রি নিতে চাই না,এমনকি ব্যাবসায়ী ও হতে চাই না।

মন্তব্য : আপনার জন্য সমবেদনা রইলো।

৬। অনেকেই তো শো অফ করার জন্য ,মেয়ে পটানোর জন্য ইংরেজি শিখে। আপনি শিখতে চান না ? হ্যা শিখতে চাই।

মন্তব্য : Sign of a LOOSER !

যাইহোক শিখতে তো চাচ্ছেন। কিভাবে শিখা যায় তাহলে ?

নেক্সট পোস্ট এ চোখ রাখুন >>>>>>>>

Advertisements